কয়েকটা বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু অকুতোভয় মেধাবী ছেলেমেয়ে এই ডেভিডের সামনে গুলতি নিয়ে দাঁড়াচ্ছে , উদুম মার খাচ্ছে, তাও দুয়ো দিচ্ছে আর বলছে রাজা তোর কাপড় কোথায় !! জানি না ওরা আদৌ কিছু পারবে কি না। হয়তো না। পিষে যাবে।

সৌম্য চট্টোপাধ্যায়: সানফিস্ট বিস্কুট, গোল্ডফ্লেক সিগারেট এগুলো কি ? প্রোডাক্ট, ITC কোম্পানির অনেক প্রোডাক্টের মধ্যে বেশ নামকরা কয়েকটা । বিজেপি একটা কোম্পানি, নরেন্দ্র মোদি তার সব থেকে চকচকে প্রোডাক্ট। বিজেপির ৩০৩ জন সাংসদ, ২৬৪ জনই কোটিপতি। দিল্লির দীনদয়াল মার্গে ১.৭০লক্ষ বর্গফুটের অট্টালিকায় পার্টি অফিস আছে। বার্ষিক ১,০৩৪কোটি আয়।

বিজেপি কোন কৌটো নাড়া চরকের দল নয়। একটা বিশাল ওয়েল রান মেশিন, কর্পোরেট দৈত্য। ৫৩২কোটির কর্পোরেট ডোনেশেন আগের বছরে। আশোকা রোডে বিশাল বাড়িতে রেজিমেন্টেড মিডিয়া সেল আছে, IIM গ্র্যাড, এক্স ইউনিলিভার, প্রোক্টর অ্যান্ড গেম্বলের মার্কেটিং প্রো-রা ক্যাম্পেন ডিজাইন করে। Deloitte, PwC এর মত প্রোজেক্ট ম্যানেজার, প্রোডাক্ট এনালিস্ট এরকম পোস্ট আছে। আমার নিজের IIM ব্যাচের দুজন বিজেপিতে চাকরি করেছে কয়েক বছর, ডেমোগ্রাফিক প্রোফাইলিং এ মাল্টি-ভ্যারিয়েট রিগ্রেশান করতো SAS ল্যাঙ্গুয়েজে।

এই কোম্পানির কি প্রোডাক্ট তাহলে ? অনেক, অনেক কিছু, বেশ বড় লিস্ট। মোদি, সাভারকর একা হাজার হাজার ব্রিটিশের সাথে লড়ছে, পাকিস্তান, যুদ্ধ , জাতীয় পতাকার অবমাননা, শহীদের সদ্যবিধবা স্ত্রী জাতীয় পতাকা নিয়ে কাঁদছে, সিয়াচেনে জওয়ানের ছবি, অক্ষয় কুমারের প্যাডম্যান, কেশরি, টয়লেট এক প্রেম কথা, মিশন মঙ্গল এসব সিনেমা, রিপাবলিক টিভি… অনেক, অনেক।

কয়েকটা বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু অকুতোভয় মেধাবী ছেলেমেয়ে রুখে দাঁড়িয়েছে

এগুলো প্রতিটা আলাদা প্রোডাক্ট। তার হিট-মিস বোঝার জন্য KPI হয়। চারটে মোটের ওপর ভাগ। Activation, Acquisition, Retention, Monetization। মিম বানানো হোক, বা ফেসবুক গ্রুপ, টুইটারে ট্রেন্ড করানো হোক, তার প্রোডাক্ট রোডম্যাপ আছে, ছ্যাবলামো করে বিজেপি চলেনা।

এসব ছাড়া হিন্দু ধর্মের ওপর একছত্র জমিদারি তো আছে বটেই। এদিকটা নাগপুর নামক লাইন অফ বিজনেস। ‘স্বয়ং সেবক’দের লেলিয়ে দেওয়ার ক্ষমতা আছে। গুজরাট-মুজ্জাফরনগরের মত চাইলেই জ্বালিয়ে দেবার মেকানিজম আছে । এই গোলিয়াথের সামনে কংগ্রেস, আম আদমি পার্টি, সমাজবাদি পার্টি কুঁকড়ে গেছে। বামপন্থী দলগুলো সাইনবোর্ড। তিনোমূল, বিসপি, আরজেডি এসব দলগুলোর ঘেটি ধরা আছে CBI দিয়ে, টুঁটি টিপতে ঘেটি থেকে বেশি দূরে যেতে হয়না।

শুধু, কয়েকটা বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু অকুতোভয় মেধাবী ছেলেমেয়ে এই ডেভিডের সামনে গুলতি নিয়ে দাঁড়াচ্ছে , উদুম মার খাচ্ছে, তাও দুয়ো দিচ্ছে আর বলছে রাজা তোর কাপড় কোথায় !! জানি না ওরা আদৌ কিছু পারবে কি না। হয়তো না। পিষে যাবে।

সব যুদ্ধ জেতার জন্য মানুষ ময়দানে যায় না। কিছু এই জন্যও যায় যাতে অনেক অনেক, অনেক বছর পরেও ইতিহাস মনে রাখে কেউতো ছিল সেদিন লড়ার জন্য, কেউ তো সেদিন ‘না’ বলেছিল।

কিছু লড়াই শুধুই এই জন্য যে ‘না’ বলাটা দরকার ছিল।

(লেখাটি সৌম্য চট্টোপাধ্যায়ের ফেসবুক ওয়াল থেকে সংগৃহীত।)


ট্যাগঃ

শেয়ারঃ


এই বিভাগের আরও লেখা